মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ইউনিয়ন পরিষদের কার্যাবলী

 

(ক) বাধ্যতামূলক কার্যাবলীঃ

 

১। আইন-শৃংখলা রক্ষ করা এবং এ বিষয়ে প্রশাসনকে সহায়তা করা।

২। অপরাধ, বিশৃংখলা এবং চোরাচালান দমনে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করা।

৩। জনগনের অর্থোনৈতিক ও সামাজিক উন্নতিকল্পে কৃষি, বন, বৃক্ষরোপন, মৎস ও পশু সম্পদ, শিক্ষা, শ্বাস্থ্য, কুঠির

    শিল্প, যোগাযোগ, সেচ ও বন্যা নিয়ত্রন ইত্যাদি ক্ষেত্রে উন্নয়নমূলক প্রকল্প গ্রহন ও বাস্তবায়ন করা।

৪। পরিবার পরিকল্পনা কার্যক্রমের প্রসার ঘটানো।

৫। স্থানীয় সম্পদের উন্নয়ন ঘটানো এবং তার ব্যবহার নিশ্চিত করা।

৬। জনগনের সম্পত্তি যথাঃ রাস্তা, ব্রীজ, কালভার্ট, বাধ, খাল, বিদ্যুৎ লাইন, সরকারী সম্পত্তি ইত্যাদি সংরক্ষণ করা।

৭। ইউনিয়ন পর্যায়ে সকল সংস্থার উন্নয়ন কার্যাবলী পর্যালোচনা করা এবং উওপজেলা নির্বাহীর কর্মকর্তার নিকট এ বিষয়ে

    সুপারিশ করা।

৮। স্বাস্থ্য সম্মত পায়খানা স্থাপন ও ব্যবহারে জনগণকে উ করা এবং এ বিষয়ে প্রচারণা চালানো।

৯। জন্ম-মৃত্যু, বিবাহ, অন্ধ, ভিক্ষুক ও দুস্থঃদের নিবন্ধন করা।

১০। সব ধরনের শুমারি পরিচালনা করা।

 

(খ) সাধারণ কার্যাবলীঃ

 

১। রাস্তাঘাটের ব্যহস্থা ও রক্ষণাবেক্ষন করা।

২। সরকারি স্থান, উন্মুক্ত জায়গা, উদ্যান ও খেলার মাঠ এর ব্যবস্থা ও রক্ষণাবেক্ষন করা।

৩। রাস্তা ঘাট ও সরকারি স্থানে আলোর ব্যবহার করা।

৪। সাধারণভাবে গাছ লাগানো ও সংরক্ষণ করা এবং বিশেষ করে রাস্তার পাশে সরকারি জায়গায় গাছ লাগানো ও সংরক্ষণ

    করা।

৫। কবরস্থান, শ্বশান ঘাট, জনসাধারনের সভার স্থান ও জনসাধারনের অন্যান্য সম্পত্তির রক্ষণাবেক্ষন ও পরিচালনা।

৬। পর্যটকদের থাকার ব্যবস্থা করা।

৭। রাস্তাঘাট এবং সরকারি স্থান নিয়ন্ত্রন ও অনধিকার প্রবেশ রোধকরণ।

৮। ইউনিয়নের পরিচ্ছন্নতার জন্য নদী, বন, ইত্যাদি তত্ত্বধান, স্বাস্থ্যকর ব্যবহার উৎকর্য সাধন ও অন্যান্য ব্যবস্থা করা।

৯। গোবর ও রাস্তার আবর্জনা সংগ্রহ, অনসারন ও ব্যবস্থাপনা নিশ্চিতকরন।

১০। অপরাধমূলক ও বিপদজনক ব্যবসা নিয়ন্ত্রন করন।

১১। রাস্তা ঘাট সরাকারি স্থানে অসামাজিক কার্যকলাপ, উপদ্রুব ইত্যদি নিয়ন্ত্রন বা প্রশমিত করা।

১২। মৃত পশুর দেহ অপসারন ও নিয়ন্ত্রনকরন।

১৩। পশু জবাই নিয়ন্ত্রনকরন।

১৪। ইউনিয়ন দালান নির্মান ও পুনঃনির্মান নিয়ন্ত্রনকরন।

১৫। বিপদজনক দালান ও কাটামো নিয়ন্ত্রন করা।

১৬। নলকূপ, জলাধার, পুকুর ও পানি সরবরাহের অন্যান্য কাজের ব্যবস্থাকরণ।

১৭। খাবার পানির উৎস দূষিতকরন রোধের ব্যবস্থা গ্রহন।

১৮। জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর সন্দেহ যুক্ত কূপ, পুকুর বা পানি সরবরাহের অন্যান্য স্থানের পানি ব্যবহার নিষিদ্ধ করা।

১৯। খাবার পানির জন্য সংরক্ষিত কূপ, পুকুর বা পানি সরবরাহের অন্যান্য স্থানে বা নিকটবর্তী স্থানে গোসল, কাপর

     কাচা বা পশুর গোসল নিষিদ্ধ ও নিয়ন্ত্রনকরন।

২০। পুকুর বা পানি সরবরাহের অন্যান্য স্থানে বা নিকটবর্তী স্থানে পাত বা অন্যান্য গাছ ভিজানো নিষিদ্ধ।

২১। আবাসিক এলাকার মধ্যে চামড়া রং বা পাকা করা নিষিদ্ধ বা নিয়ন্ত্রন করা।

২২। আবাসিক এলাকার মাটি খনন করে পাথ বা অন্যান্য বস্তু উত্তোলন বা নিয়ন্ত্রন করা।

২৩। আবাসিক এলাকায় ইটের ভাটা, মাটির পাত্র বা অন্যান্য চুল্লি নির্মাণ নিষিদ্ধ বা নিয়ন্ত্রন করা।

২৪। গৃহপালিত পশু বা অন্যান্য পশু বিক্রয়ের তালিকাভুক্তিকরন।

২৫। মেলা বা প্রদর্শনীর আয়োজন করা।

২৬। জনসাধারণের উৎসব পালনের ব্যবস্থা করা।

২৭। অগ্নি, বন্যা, ভূমিকম্প বা অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ উদ্ধার করা।

২৮। বিধবা, এতিম, গরিব ও দুঃস্থ ব্যক্তিদের সহায়তা করা।

২৯। খেলাধূলার উন্নতি সাধন করা।

৩০। শিল্প ও সামাজিক উন্নয়ন, আন্দোলন ও গ্রামীন শিল্পের উন্নয়ন সাধন ও উৎসাহ দান।

৩১। বাড়তি খাদ্য উৎপাদনের ব্যবস্থা করা।

৩২। পরিবেশ ব্যবস্থাপনার কাজ।

৩৩। গবাদি পশুর খেয়ার নিয়ন্ত্রন ও রক্ষনাবেক্ষনের ব্যবস্থা করা।

৩৪। প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্রের ব্যবস্থা করা।

৩৫। গ্রন্থাগার ও পাঠাগারের ব্যবস্থা করা।

৩৬। ইউনিয়ন পরিষদের মত সাদৃশ কাজে নিয়োজিত অন্যান্য সংস্থাকে সহযোগিতা প্রদান।

৩৭। জেলা প্রশাসকের নির্দেশক্রমে শিক্ষার উন্নয়নে সাহায্য করা।

৩৮। ইউনিয়নের বাসিন্দা বা পরিদর্শনকারীদের নিরাপত্তা, আরাম আয়েশ বা সুযোগ-সুবিধার জন্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য

     ব্যবস্থা গ্রহন করা।

এছাড়াও পুলিশ ও নিরাপত্তা, রাজস্ব প্রশাসন, উন্নয়ন ও দারিদ্র দুরীকরন এবং বিচার সংক্রান্ত কার্যাবলী নির্ধারিত আছে।


Share with :

Facebook Twitter